শাকিলা তুবা
September 25, 2019

হাসান ইমতি

আবহমান

 

চোখের দেশে উর্বসী রাজধানী তুমি,

অপেক্ষার পরগণায় সবুজ সংকেতের ঘাসজমি,

শীতের উপত্যকায় নৈকট্যের আদিম সালতামামি,

তুমি বিহনে সময়ের পাড়ায় বিরহ আমি।

চরের মত যখন তখন বেদখল হয় যদি মন,

যার তার জন্য যদি সাজে চুড়িদার হাতে কাঁকন,

ফেরার প্রতীক্ষায় যদি না বাঁচে চোখে কাঁপন,

হারের মত বুকে বাজে যদি জয়ের মাতন,

জ্বরের মত ওঠে নামে যদি সম্পর্কের পারদ,

রাতের কাপে কবিতা ঝড় থেমে যদি জ্বলে আগুন,

স্মৃতির পক্ষপাতে যদি পোড়ে বুকের বারুদ,

ভালোবাসার পুরনো সে হাতচিঠিতে

যদি যুগে যুগে ফেরার হয় মানব জনম,

ক্ষমতার মসনদে যদি ধরে খাকি পচন,

বেদনার রং যদি হয় জলপাইয়ের মতন,

জেনে রেখো উনুনের বিশুদ্ধ আঁচে

প্রতিদিন তবুও তোমাকেই প্রয়োজন,

গরম ভাতের ধোয়া ওঠা পেয়ালায় প্রতিদিন

তোমার সাথে বাঁচা মরার অন্য নাম জীবন…

 

 

প্রেমিক অথবা পুরুষ

 

কবিতার অন্তর্বাসের তৃতীয় হূক খুলতেই

ডানা ঝাপটিয়ে ফিরে এল প্রথম প্রেম,

হাত ধরে সে সময়কে নিয়ে গেল

মহেঞ্জোদারোর যৌবনের উপত্যকায়,

যেখানে রৌদ্রছায়ার সাথে আজও

লুকোচুরি খেলা করে মহাকাল,

একদিকে স্মৃতির জলছবি উঠোন,

অন্যদিকে কবিতার খাপখোলা ডাক,

কে আজ বল কার প্রতিপক্ষ?

যামিনী কানে কানে বলে দাও,

কার আকাশে ওড়ে সুখের শঙ্খচিল ?

কোন নদীর আয়নায় জল ছোঁয় অন্তস্তল?

আমি কি প্রেমিক হব না সব ভুলে পুরুষ ?

 

// হাসান ইমতি, ঢাকা