সবুজে খোদিত তুমি // জয়নাল আবেদীন শিবু

খোশহালপুরে কি খুব খোশ হালে ছিলেন সাইয়িদ ফখরুল?
জানি হাল-হকিকত ছিলোনা বেশি ভালো
জীবনের কতো টানপোড়েন শামুকের খোলসে ভরে
জনতাকে ভালোবেসে শুদ্ধ কোলাহলে মিশে গেছো
শত বিভেদের সিঁড়ি ভেঙ্গে। সেখানেই দেখেছি
প্রাণময় পুরুষ এবং পৌরুষের গাঢ়তা।
তোমার কথা শুনতাম- দীর্ঘ দেহের ভেতর,
দীঘল চুলের ভেতর, বিস্ফারিত চোখের ভেতর
বয়ে চলা সামুদ্রিক ঝড়!
যেখানে অন্ধকার, ক্লেশ, ক্ষুধা, স্তাবকতার নোনাজলে
ডুবতে থাকে বিবেকি মানস
মৃত্যুফাঁদে আটকে ডাকে বিরহি ডাহুক-
একদিন তোমার দুহাত ভরে বাড়িয়ে দিয়েছিলে
সেখানে বসন্তের বাতাস। সপ্রতিভ সৌন্দর্যের বিরোধীতা
মুখ বুঁজে সহো নি- জিহ্বায় ফুটিয়েছো বিকেলের প্রজাপ্রতি।

কতোগুলো মানুষ দেখি আজ মোমের পুতুল
বাঁকা শিরদাঁড়া! জীর্ণশীর্ণ ব্যর্থ চেহারা!
সাম্যবাদের সাম্পান পানের তৃষ্ণা দেখি না
এদের মাঝে, তোমার মতোন।

আজ অপারে তুমি; অতল আঁধারে নয়
তোমার আকাক্সক্ষাগুলো সবুজে খোদিত স্বাক্ষর,
কথা কয়…